google

Loading

facebook

দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়ালো বরিশাল

দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়ালো বরিশাল। গতকাল খুলনাকে ৮ উইকেটে হারিয়ে বরিশাল প্রথম জয় তুলে নিয়েছে। প্রথম আসরে ক্রিস গেইলকে নিয়ে শক্তিশালী দল ছিল বরিশাল। তারা রার্নাসআপও। কিন্তু দ্বিতীয় আসরে পাকিস্তান খেলোয়াড় না ছাড়ায় দলটির একাদশ গড়াই কঠিন হয়ে পড়ে। কিন্তু বিদেশী খেলোয়াড় ভিড়িয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে দলটি। অন্যদিকে গতবার আইকন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে খুলনা রয়েল বেঙ্গলও ছিল প্রচণ্ড শক্তিশালী দল। কিন্তু দ্বিতীয় আসরে তাদের ছিটেফোঁটাও খুঁজে পাওয়া মুশকিল। দল গঠনেও তাদের মধ্যে প্রথম আসরের উত্তেজনা খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর পাকিস্তানি ক্রিকেটার না আসায় খুলনাই বিপিএলের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দল। অবশ্য তারা গতকাল তিনজন বিদেশী ক্রিকেটার দলে ভিড়িয়েছে। তবুও দল জয়ের মুখ দেখেনি। গতকাল টসে জিতে শাহরিয়ার নাফীস ও রিকি ওয়েসেলসের ব্যাটে ভর করে সংগ্রহ করে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৮ রান। এর জবাবে অধিনায়ক ব্রাড হজের ফিফটিতে ১৮.৩ ওভারেই জয় তুলে নেয় বরিশাল বার্নাস।
১৪৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত জুটি গড়ে তোলেন ফিল মাস্টার্ড ও ব্রাড হজ। দুই ওপেনার ৫৩ বলে ৭৮ রানের জুটি গড়ে। এর মধ্যে ফিলের অবদান ৩১ রান আর হজের ৪১। তবে ফিল ২৭ বলে ৫৫ রান করে আউট হন। কিন্তু অধিনায়ক হজ ফিফটি তুলে নেন। আউট হওয়ার আগে করেন ৪০ বলে ৫৩ রান। তবে তারা দুজন আউট হলেও এই দু’জনের গড়ে দেয়া ভিতে দাঁড়িয়ে জয় তুলে নেন জো ডেনলি ও আজহার মেহেমুদ। তারা গড়ে তোলেন অপরাজিত ৪৫ রানের জুটি। আজহার করেন ১৬ বলে ২৫ রান। ডেনলি করেন ২৮ বলে ৩০ রান। ব্যাটিংয়ে বরিশালের দেশী কোন ব্যাটসম্যানকেই নামতে হয়নি। সানজামুল ও ডলার একটি করে উইকেট পান। এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই রয়েল বেঙ্গলস ওপেনার নাজিমউদ্দিনকে সাজঘরে ফেরান শফিউল ইসলাম। শুরুর ধাক্কাটা সামলে উঠতে তৃতীয় উইকেট জুটিতে শাহরিয়ার নাফীস ও রিকি ওয়েসেলস ৫৮ রান করেন। ২৮ বলে ৯ চারে ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস  খেলেন নাফীস। এর পরই সাব্বির রহমান রানআউট করে নাফীসকে সাজঘরের পথ দেখান। নাফীসের আউটের পর অন্যপ্রান্ত আগলে রাখা চেষ্টা করেন রিকি। তবে ৪৪ বলে তিন চার ও দুই ছয়ে সর্বোচ্চ ৪৮ রানে আজহার মাহমুদের শিকার হন ওয়েসেলস। মূলত এ দুই ব্যাটসম্যান বাদে আর কেউই বড় সংগ্রহ করতে পারেননি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১১ রান করেন দলের নতুন সংযোজন ড্যানিয়েল হ্যারিস ও ফরহাদ রেজা। আর ডলার মাহমুদ ৭ রানে অপরাজিত থাকেন। মাঠে নেমে কোন বলই মোকাবিলা করতে পারেননি অপর প্রান্তে থাকা আফগান ক্রিকেটার শাপুর জারদান। রয়েল বেঙ্গলসের তিন ব্যাটসম্যান রান আউটের শিকার হন। একটি করে উইকেট দখল করেছেন বার্নার্সের শফিউল ইসলাম, আজহার মাহমুদ, কবির আলী, ইলিয়াস সানি ও অলক কাপালি।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
খুলনা রয়েল বেঙ্গলস ইনিংসঃ ২০ ওভারে ১৪২/৮; (ওয়েসেলস ৪৮, শাহরিয়ার ৪৩, ফরহাদ ১১, হ্যারিস ১১; শফিউল ১/১৩, কাপালী ১/১৮)।
বরিশাল বার্নার্স ইনিংসঃ ১৮.৩ ওভারে ১৪৬/২; (হজ ৫৩, মাস্টার্ড ৩৫, ডেনলি ৩০*, আজহার ২৫*; ডলার ১/২২)।
ফলঃ বরিশাল বার্নার্স ৮ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরাঃ  ব্রেড হজ (বরিশাল বার্নার্স)।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

adsvert

adsgem

Conduit

Powered by Conduit