google

Loading

facebook

টাইগাররা আবারো তাদের সামর্থের প্রমাণ দিল।

টাইগাররা আবারো তাদের সামর্থের প্রমাণ দিল। শ্বাসরুদ্ধকর এক জয় উপহার দিল টাইগারের দল। আশা জাগানু ম্যাচে উন্থান পতন যে কতবার হয়েছে তার হিসাব নেই। কখনো জেতার আশা দর্শকদের আনন্দের সাগরে ভাসিয়েছে। আবার কখনো পরাজয়ের ভয় দর্শকদের কাঁদিয়েছে। ২২৬ রানের টার্গেট নিয়ে মাঠে নেমে কান্না- হাসির এই খেলায় ইনিংসের শুরুতে ইংল্যান্ড বোলাদের তুলোধুনা করেন মারকুটে ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। তার ব্যাটেই জয়ের স্বপ্ন দেখে ১৬ কোটি মানুষ। এরপরের স্মৃতি অতটা সুখকর নয়। আসা যাওয়ার মিছিলে জুনায়েদ, রাকিবুল হাসান নাম লেখালেও ইমরুল কায়েস এক বিরোচিত ইনিংস খেলেন। জয়ের ভিতটা তিনি অনেকটা মজবুত করেই সাজঘরে ফিরেন। অধিনায়ক সাকিব একটা বড় স্কোর খেলার চেষ্টা করলেও মানসিক চাপে তা আর হয়ে উঠেনি। মুশফিকুর রহিমও ক্রিজে টিকতে পারনি বেশিক্ষণ। যাদের কথা না বললেই নয় ম্যাচ জয়ের নায়ক হিসেবে আবির্ভূত হন রিয়াদ আর আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়ের নায়ক শফিউল ইসলাম। তারা দুজনেই জয়ের আশার আলো আস্তে আস্তে ফোটাতে থাকেন। মুখে হাসি ফুটতে থাকে গ্যালারিতে থাকা দর্শকদেরও। অবশেষে তারা ২ উইকেটে জয় উপহার দিয়েই খেলা শেষ করেন। বাংলাদেশের পক্ষে ইমরুল কায়েস সর্বোচ্চ ৬০ রান করেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর বোর্ড
তামিম ৩৮, ইমরুল কায়েস ৬০, জুনায়েদ সিদ্দিকী ১২, রাকিবুল হাসান ০, সাকিব ৩২, মুশফিক ৬, মাহমুদুল্লা অপরাজিত ২১, নাঈম ইসলাম ০, রাজ্জাক ১, শফিউল অপরাজিত ২৪।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

adsvert

adsgem

Conduit

Powered by Conduit